‘বিবাহিত জীবনে কঠিন সময় আসতেই পারে’

বিরাট কোহলি এবং আনুশকা শর্মা। ছবি: সংগৃহীত
বিরাট কোহলি এবং আনুশকা শর্মা। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘ চার বছর প্রেম করার পর অনেকটা গোপনেই গত বছরের ডিসেম্বরে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ভারতীয় ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও বলিউড অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। ইতোমধ্যে তারকা এই জুটির বিয়ের বয়স ১১ মাস পেরিয়ে গেছে। নিজেদের কাজের ব্যস্ততার মাঝেই চুটিয়ে সংসার জীবন উপভোগ করছেন কোহলি-আনুশকা।

আর কদিন বাদেই কোহলি-আনুশকার বিয়ের বর্ষপূর্তি। তার আগে এই তারকা জুটি রিলেশনশিপ নিয়ে বেশ কিছু উপদেশ পেলেন ভারতের সাবেক স্পিনার হরভজন সিংয়ের কাছ থেকে। বলিউ়ডের অভিনেত্রী নেহা ধুপিয়ার শো ‘নো ফিল্টার নেহা’তে সম্পর্কসংক্রান্ত বেশ কিছু উপদেশ দিয়েছেন হরভজন।

বিরুশকাকে কী উপদেশ দিয়েছেন হরভজন? ভারতীয় এই স্পিনার বলেছেন, ‘বিবাহিত জীবনে কঠিন সময় আসতেই পারে। তাই একসঙ্গে থাকো, একে অপরকে জানো। যত দিন একসঙ্গে কাটাবে, তত বেশি একে অপরকে চিনতে পারবে।’

শুধু কোহলি-আনুশকাই নয়, শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জা এবং জহির খান-সাগরিকা ঘাটগে জুটিকেও উপদেশ দিয়েছেন হরভজন। কোহলি-আনুশকার মতো শোয়েব-সানিয়াকেও একসঙ্গে বেশি বেশি সময় কাটানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

জহির-সাগরিকার প্রতি ভাজ্জির উপদেশটা অবশ্য বাকিদের থেকে আলাদা। ওই জুটিকে হরভজন বলেছেন, ‘কিছু সময় একে অপরের থেকে একটু আলাদা থাকো।’

রিলেশনশিপ নিয়ে অন্যদের উপদেশ দিয়েই ক্ষান্ত থাকেননি তিনি। তার সঙ্গে গীতা বাসরার সম্পর্ক কীভাবে শুরু হয়েছিল, সে গল্পও শুনিয়েছেন। গীতার সঙ্গে তার সম্পর্ক গড়তে যুবরাজের সাহায্যের কথাও অকপটে স্বীকার করেছেন তিনি। পাশাপাশি জানিয়েছেন, আট-নয় মাস সময় নেওয়ার পরই গীতা তাকে হ্যাঁ বলেছিলেন।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.