ইজতেমা একদিন বাড়িয়ে চার দিন করার সিদ্ধান্ত

তাবলিগের বিবদমান দুপক্ষ দুদিন করে চারদিন ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা পালন করবে। বিরোধ মেটাতে মঙ্গলবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বৈঠকে উপস্থিত নির্ভরযোগ্য সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আসন্ন ইজতেমা আয়োজনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে তাবলিগের বিবদমান দুটি পক্ষের সিনিয়র নেতাদের নিয়ে ফের বৈঠকে বসেছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আবদুল্লাহ। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় সচিবালয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর দফতরে এ বৈঠক শুরু হয়েছে। এতে সাদপন্থীদের পক্ষে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সৈয়দ ওয়াসিফ ইসলাম। অপরদিকে সাদবিরোধীদের পক্ষে মাওলানা জুবায়ের নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

এর আগে গত ৩ ফেব্রুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রথমদফা বৈঠক শেষে ওইদিনই বিকেলে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে দ্বিতীয় দফায় বৈঠক হয়। পরে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মো. আব্দুল্লাহ সাংবাদিকদের বলেন, কিছুদিন ধরে বিভিন্ন লোক বিভিন্নভাবে বিশ্ব ইজতেমাকে ভাগাভাগি করার চেষ্টা করছে। কোনোভাবেই এটাকে ভাগ করতে দেয়া যাবে না। গতবছরও গোলযোগ রাস্তায় এসে গিয়েছিল। আমরা এটা সফলভাবে নিবৃত করতে সক্ষম হয়েছি। ‘এবার দূরত্বটা অনেক বেশি, আরও শক্ত হয়েছে। শক্ত কারণগুলোর জট খুলতে আমাদের একটু শক্ত হতে হয়েছে। দু’পক্ষকে এক জায়গায় বসাতে সক্ষম হয়েছি, যাতে এক জায়গায় করতে পারি। এজন্য নিরাপত্তার দায়িত্ব সরকারের।’

সেদিন তিনি আরও বলেন, কয়েক দিন আগে নির্বাচনে জয়ী হলো সরকার, প্রথম কাজটাই যদি হয় তাবলিগ জামাতের ইজতেমা হচ্ছে না, নিন্দুকের তো আর অভাব নাই। বলবে যে তাবলিগটাই ভেঙে দিয়েছে। এর সঙ্গে সরকারের ইমেজ জড়িত। তাবলিগ-জামাত হতে হবে একসঙ্গে। এটা প্রধানমন্ত্রীর ইমেজের সঙ্গে জড়িত।

প্রতিমন্ত্রী সেদিন বলেন, আজকে সবাই একমত যে ১৫-১৭ ফেব্রুয়ারি একত্রে টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা হবে। তবে কিছু কিছু কথা আছে সে কারণে আবারও একসঙ্গে বসতে হবে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.