শীতেও ভালো থাকুক ত্বক

রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এই বিষয়ের ওপর প্রকাশিত প্রতিবেদনে ভারতী রূপবিশেষজ্ঞ সত্যিয়া শর্মার দেওয়া পরামর্শ অবলম্বনে শীতে ত্বক ভালো রাখার সাধারণ কিছু উপায় সম্পর্কে জানানো হল।

মাস্ক পরিবর্তন করুন: শীতে ত্বক পরিষ্কার ও আর্দ্র রাখতে জেল বা ক্রিম-ধর্মী মাস্ক সপ্তাহে দুবার লাগান। এই ধরনের মাস্ক বিষাক্ততা, জীবাণু ও পোড়াভাব দূর করার পাশাপাশি ত্বক আর্দ্র রাখে। আর বলিরেখা দূর করতেও সাহায্য করে।

গোসলের রুটিন পরিবর্তন: গরম পানিতে গোসল বেশ আরামদায়ক। গোসলের পরে ত্বকে বিশেষ করে শুষ্ক ও খোলা থাকে এমন অংশে লোশন লাগাতে হবে। গোসলের পরপরই ত্বক আর্দ্র রাখা জরুরি। ভেজা ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা হলে তা ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে। শীতকালে দিনের বেলাতেও ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বা লোশন লাগানো উচিত।

ত্বক খুব বেশি শুষ্ক হলে ‘রিচ ক্রিম’ ব্যবহার করুন আর সাধারণ এবং শীতে শুষ্ক হয়ে যায় এমন হলে ভালো পিএইচ সমৃদ্ধ সাধারণ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। লোমকূপ বন্ধ করে দেয় এমন ক্রিম ব্যবহার করা যাবে না। চাইলে রূপবিশেষজ্ঞের পরামর্শও নিতে পারেন।

সূর্যরশ্মি থেকে বাঁচতে: সূর্যের তাপ কম বলে হেলাফেলা করা যাবে না; শীতেও বাইরে যাওয়ার সময়ও ‘সান ব্লক’ ব্যবহার করা জরুরি। ক্ষতিকর সূর্যরশ্মি থেকে ত্বক বাঁচাতে এসপিএফ ২৫ সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

সিরাম ব্যবহার: ঠাণ্ডা আবহাওয়া থেকে ত্বক বাঁচাতে আর্দ্রতা ও ‘অ্যান্টি-এইজিং’ উপাদান সমৃদ্ধ সিরাম ব্যবহার করা ভালো।

সিরামের সুক্ষ্ম অণু ত্বক সহজেই শোষণ করে নেয়। এটা ‘অ্যান্টি-এইজিং’ উপাদান যেমন- ‘অ্যান্টি অক্সিডেন্ট’ ও ‘পেপটাইডস’ সমৃদ্ধ। শীতে নাইট ক্রিম ব্যবহার করা আবশ্যক।

গরম পানি নয়: শীতে গোসল করতে গরম পানির পরিবর্তে কুসুম গরম পানি ব্যবহার করুন।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.